starbangla.tv l tv channel l News & Program
Welcome
Login / Register

লাইফস্টাইল- ফিচার


  • সহজে ঠোঁট ফাটা ঠেকানোর উপায়

    শীতের সময় আবহাওয়া থাকে শুষ্ক। বাতাসে জলীয়বাষ্পের পরিমাণ ব্যাপকভাবে কমে যায়। এতে ত্বক হয়ে যায় রুক্ষ, খসখসে। ঠোঁটের বারোটা বাজে সবার আগে। এ সময় অনেকেরই ঠোঁট ফাটে, কথা বলা ও হাসির ক্ষেত্রে যা বিড়ম্বনা সৃষ্টি করে।

     

    ঠোঁট ফাটা ঠেকাতে অনেকেই চ্যাপস্টিক আর লিপবাম ব্যবহার করেন। এসব উপাদান হয়তো সাময়িক স্বস্তি দেয়, তা কিন্তু দীর্ঘমেয়াদি সমাধান নয়। লিপবাম বা চ্যাপস্টিকের বিকল্প হিসেবে প্রাকৃতিক উপায়ে ঠোঁট ফাটা ঠেকাতে পারেন। জেনে নিন কীভাবে ঠেকাবেন ঠোঁট ফাটা:

    মধু-ভ্যাসলিন: মধুতে ব্যাকটেরিয়া প্রতিরোধী উপাদান আছে। ভ্যাসলিন বা পেট্রোলিয়াম জেলি ত্বককে শুষ্কতা থেকে রক্ষা করে নরম রাখে। তাই মধু ও ভ্যাসলিন মিশিয়ে মাখলে ঠোঁট ফাটার উপশম হবে।

    ঘৃতকুমারী: এটি শুধু ত্বকের জন্য উপকারী নয়; ত্বকের শুষ্কতা দূর করতে এবং ঠোঁট ফাটা ঠেকাতে পারে। এতে যে প্রাকৃতিক উপাদান আছে, তা নিয়মিত ঠোঁটের সংস্পর্শে এলে ঠোঁট ফাটা সারে।
    অলিভ অয়েল: এটি প্রাকৃতিক ময়েশ্চারাইজার ও লুব্রিকেন্ট। এতে যে ফ্যাটি অ্যাসিড থাকে, তা ত্বকের শুষ্কতা দূর ও ঠোঁট ফাটা ঠেকাতে পারে। দিনে দুবার ঠোঁটে অলিভ অয়েল মাখলে ঠোঁট নরম ও মসৃণ হয়।
    নারকেল তেল: ঠোঁট ফাটা ঠেকাতে দীর্ঘদিন ধরেই নারকেল তেলের ব্যবহার দেখা যায়। এতে প্রচুর পরিমাণ ফ্যাটি অ্যাসিড আছে, যা ঠোঁটের শুষ্কতা দূর করে। ঠোঁট ফাটা ঠেকাতে নিয়মিত নারকেল তেল লাগাতে পারেন।

    Read more »
  • যে কারণে সাবেক সঙ্গীকে ভোলা যায় না

    সম্পর্ক শেষ বললেই কি সম্পর্ক শেষ হয়ে যায়? বিচ্ছেদের পরও অনেক সময় সঙ্গীকে ভোলা যায় না। তার সঙ্গে কাটানো মুহূর্ত, দীর্ঘদিন একসঙ্গে থাকার কারণে তার ওপর নির্ভরশীলতা—সব মিলিয়ে চাইলেই আগের সম্পর্ক মন থেকে মুছে ফেলা যায় না। আর কী কী কারণে সাবেক প্রেমিক বা প্রেমিকাকে ভোলা যায় না, তার কিছু কারণ জানিয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়া। একনজরে দেখে নিন কী সেগুলো।

    ১. মায়ার কারণে

    সম্পর্কে আকর্ষণ না থাকা, ভাবনার অমিল, সন্দেহ—এসবই মূলত সম্পর্ক বিচ্ছেদের কারণ। কিন্তু সম্পর্ক না থাকলে ভালোবাসাও কি থাকে না? সঙ্গীর সঙ্গে দীর্ঘদিন থাকায় তার প্রতি এক ধরনের আকর্ষণ ও মায়া চলে আসে। চাইলেই তা থেকে বেরিয়ে আসা সম্ভব হয় না। তাই অনেকেই সম্পর্ক বিচ্ছেদের পরও সাবেক সঙ্গীর কথা ভাবেন।

    ২. কিছু না থাকার চেয়ে সামান্য কিছু থাকা ভালো

    মূলত এটা একটা প্রবাদ। সাবেক সঙ্গীর সঙ্গে ডেট করতে পারেন না, তাতে কী? অনেকের ধারণা, কিছু না থাকার চেয়ে মাঝেমধ্যে কথা বলা এবং দেখা করা মন্দ নয়। এমন ভাবনার কারণে অনেকে সাবেক সঙ্গীর সঙ্গে যোগাযোগ রাখেন।

    ৩. বন্ধু হয়ে থাকা

    সম্পর্ক বিচ্ছেদের পরও আপনি যদি সাবেক প্রেমিক বা প্রেমিকার সঙ্গে বন্ধুত্ব বজায় রাখেন, তাহলে বুঝতে হবে তাকে এখনো ভালোবাসেন। এত কিছুর পরও সেই সঙ্গীর কাছে থাকার এটাই কারণ।

    ৪. ভুলতে না পারা

    অনেকেই সম্পর্ক ভাঙতে মোটেই পছন্দ করেন না। সে কারণে বিচ্ছেদ হওয়ার পর সেটা মেনে নিতে পারেন না। তাই মনের শান্তির জন্যই সাবেক সঙ্গীর দ্বারস্থ হন।

    ৫. আগ্রহের কারণে

    সে কী করছে, অন্য কোনো সম্পর্কে জড়াল কি না, কোথায় আছে এমন অনেক প্রশ্ন সাবেক প্রেমিক বা প্রেমিকাকে নিয়ে অনেকের মনে ঘুরপাক পায়। তাই এ বিষয়গুলোর প্রতি আগ্রহের কারণেই অনেকে সাবেক সঙ্গীকে নিয়ে চিন্তা করেন।

    Read more »
  • আকাশ থেকে পড়া সেই বিশাল বস্তুটি আসলে কি?

    নভেম্বরের ১০ তারিখে থাইল্যান্ডের আকাশ থেকে পড়ল বিশাল এক বস্তু। পাহাড়বেষ্টিত প্রত্যন্ত অঞ্চলে পড়েছে অচেনা বসন্তুটি। একে নিয়ে ব্যাপক চাঞ্চল্য দেখা দিয়েছে।

    সিলিন্ডার আকৃতির জিনিসটি ১২ ফুট লম্বা। এর ডায়ামিটার ৫ ফুট। জেন মাইনের লোন খিন গ্রামে পড়েছে। গ্রামবাসীরা অনেক সকালে ঘুম থেকে উঠে পড়েছেন এর আওয়াজে। মাটিতে পড়ার আওয়ার ছিল মারাত্মক। কেউ অবশ্য আহত হননি। একে ফ্লাইং সসারের মতো আনআইডেন্টিফাইড ফ্লাইং অবজেক্ট হিসাবে চিহ্নিত করা হয়েছে। জেন খনির শ্রমিকদের পরিত্যক্ত তাঁবুর ওপর পড়েছে জিনিসটি।

    ওই গ্রামের ড মা কাইয়ি দ্য মিয়ানমার টাইমসকে জানান, এটি পড়ার পর আমাদের বাড়ি কেঁপে উঠেছে। প্রথমে ভেবেছিলাম যুদ্ধ লেগে গেছে।

    প্রথম দর্শনেই মনে হবে এটি কোনো এয়ারক্রাফ্ট থেকে পড়েছে। সম্ভবত একটি ইঞ্জিন। এর মধ্যে আমি তামার তার দেখেছি। বস্তুটির লেজের দিকে এমনটাই দেখা গেছে। এমনটাই জানান গ্রামের কো মাউং মাইয়ো। অনেকটা জেট ইঞ্জিন ব্লকের মতো দেখতে।

    সরকারি কর্মকর্তারা বলেছেন, আমরা এখনও বস্তুটি চিহ্নিত করতে পারিনি। তবে বিশেষজ্ঞরা এটা নিয়ে গবেষণা করছেন। ফেসবুকে এর ছবি প্রচার করা হয়েছে। এটা অনেকটা ইউএফও'র মতো। কিংবা কোনো বাণিজ্যিক বিমানের অংশ।

    এর আগের দিন চীন লং মার্চ রকেট ১১ উৎক্ষেপণ করেছে। পাঁচটি স্যাটেলাইট এবং পরীক্ষামূলক এক্স-রে পালসার নেভিগেশনসহ তা উৎক্ষেপণ করা হয়। এই ৫৩০ পাউন্ড ওজনের মহাকাশযানটিতে রয়েছে সোলার অ্যারাইস এবং দুটো ডিটেক্টর যা পালসার থেকে বেরিয়ে আসা এক্স-রে শনাক্ত করবে। এমন রকেট ও স্যাটেলাইটের অনেক অংশ থাকে যা অপ্রয়োজনীয় এবং এগুলো বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এসব বিচ্ছিন্ন অংশের আঘাতে কারো আহত হওয়ার সম্ভাবনা খুব কম। বিশেষ করে এগুলো পৃথিবীর মাটিতে পড়ে কাউকে আহত করার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে। এগুলো মহাকাশেই ঘুরতে থাকে। সেখান থেকেই কোনো অংশ মিয়ানমারের আকাশ হয়ে পড়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

    মহাকাশে এমন অনেক বাতিল যন্ত্রপাতি ঘুরে বেড়াচ্ছে। এক হিসাবে বলা হয়, মার্বেল আকৃতির বা বড় সাইজের ৫০ হাজার যান্ত্রিক আবর্জনা পৃথিবীকে কেন্দ্র করে ঘুরছে। এসব আবর্জনার মধ্যে ২০ হাজারের আকার হবে একটি বলের সমান। ২০১২ সালে সুইজারল্যান্ড এমন এক মহাকাশযান বানানোর প্রস্তাব করে যা কিনা এসব আবর্জনা পরিষ্কার করবে।
    সূত্র : ফক্স নিউজ

     

    Read more »
  • তিমির বমি যার মূল্য ২০ কোটি ৩২ লাখ টাকা!

    তিমির ৮০ কেজি বমি পেয়ে বেজায় খুশি ওমানের খালিদ আল সিনানি ও তার দুই সঙ্গী৷ ভাবছেন এতে আবার আনন্দিত হওয়ার কি আছে। এ যেন আলাদিনের আশ্চর্য প্রদীপ৷ কারণ এর দাম ওমানী রিয়ালে ১০ লাখ এবং বাংলাদেশি মুদ্রায় হিসাব করলে দাঁড়ায় ২০ কোটি ৩২ লাখ টাকা।

     

    ওমানের কুরায়াত প্রদেশের এক সমুদ্রতীরে ভাসমান অবস্থায় এটি পান তিন জেলে। ২০ বছর ধরে সমুদ্রের জলে ভেসে বেড়ানোর ফল তারা পেয়েছেন অক্টোবর মাসের ২০ তারিখে৷

     

    ভাসমান তিমির বমি অতি বিরল বস্তু৷ যা কালেভদ্রে নিরক্ষীয় এলাকায় গভীর সমুদ্রে পাওয়া যায়৷ মোমের মতো এই তরল তিমির শুক্রানুর সঙ্গে মিশে অন্ত্রের মধ্য দিয়ে নিঃসৃত হয়৷ তরল অবস্থায় এর থেকে বিকট গন্ধ বের হয়৷ কিন্তু শুকিয়ে গেলেই এর সুগন্ধ ছড়িয়ে পড়ে চারদিকে৷ সুগন্ধীর বাজারে এই কারণেই মহামূল্যবান তিমির বমি৷

     

    ২০ তারিখ তিন বন্ধুকে নিয়ে ওমানের কুরায়ত এলাকায় মাছ ধরতে গিয়েছিলেন খালিদ৷ তখনই বিকট গন্ধ নাকে আসে৷ খালিদ দড়ি দিয়ে টেনে কাছে নিয়ে এলো তিমির বমি। তারপর উঠালো তাদের নৌকায়।

     

    খালিদ বলেছেন, ‘আমার স্বপ্ন পূরণ হয়েছে। এমন একটি দিনের জন্য আমি অপেক্ষায় ছিলাম ২০ বছর ধরে, যখন আমি আমার বাবার সঙ্গে মাছ ধরি।’

     

    এরই মধ্যে সংযুক্ত আরব আমিরাত ও সৌদি আরবের ব্যবসায়ীরা প্রতি কেজি বমির জন্য ১০ হাজার রিয়াল দাম বলেছেন। কিন্তু তিনি রাজি হননি। আরও বেশি দামের জন্য অপেক্ষা করছেন।

     

    টাকাগুলো পেয়ে গেলে খালিদ তার পেশা পরিবর্তন করে আবাসন খাতে কাজ করতে চান। যার মাধ্যমে তার ভাগ্য ও জীবন ধারা পরিবর্তন হয়ে যাবে।

     

    ২০১৫ সালে দুইজন ওমানি জেলে এমন তিমির বমি পেয়েছিলেন। যা ৮০ হাজার ওমানি রিয়ালে তখন বিক্রি করা হয়েছিল। এই বমি দিয়ে খুবই উচ্চ মানের পারফিউম তৈরি হয়। যা হাজার হাজার ডলারে বিক্রি হয়। আমোয়েচ হলো ওমানের আন্তর্জাতিক পারফিউম ব্র্যান্ড। যা বিশ্বের সবচেয়ে ব্যয়বহুল পারফিউম। সূত্র : এনডিটিভি।

     

    Read more »
  • পৃথিবীর অভ্যন্তর থেকে মিলছে অদ্ভুত শব্দ সংকেত!

    কানাডার তিরবর্তী অঞ্চলে আর্টিক সাগরের গভীরে গত কয়েক মাস ধরে শোনা যাচ্ছে একটি অদ্ভুদ শব্দ। জাহাজ, নৌকা বা যে কোনও ধরনের সামুদ্রিক যান নিয়ে ওই অঞ্চলের উপর দিয়ে গেলেই শোনা যাচ্ছে ওই শব্দ। কখনও তা শুনতে বেলের মতো, আবার কখনও তা বিপ শব্দের মতো শোনাচ্ছে। শব্দটি নেয় চলছে নানা গবেষণাও।

    কিন্তু কী এই শব্দ?

    কানাডার জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা দফতরের এক প্রতিনিধি দল বেশকিছু দিন ধরেই সেখানে পরীক্ষা চালাচ্ছে শব্দটি নিয়ে। একাধিক তত্ব উঠে আসলেও, সেখানে শব্দের উত্স সম্পর্কে তেমন পাকা কোনও প্রমাণ পাওয়া যাচ্ছে না। তবুও, তার মধ্যে একটি তত্ব নিয়ে এখন গবেষণা চলছে।

    Read more »
RSS
উপদেষ্টা : এডভোকেট মামুনুর রশিদ মামুন
কৃষিবিদ এম. সগিরুল ইসলাম মজুমদার ( জাপান)
প্রধান সস্পাদক: ডা: এম এ মতিন,
সম্পাদক: মো: জিয়াউল ইসলাম
সহ-সম্পাদক: নেছার উদ্দিন মজুমদার
অফিস: ৩৫ পুরানা পল্টন লাইন নীচতলা, ভি আই পি রোড ঢাকা-১০০০
ফোন: ০১৭২৭৯৩২৬৫২, ৯৩৫৪৯৯
জাপান ডেক্স +৮১৯০৬৮৬৩৪৭৩৩২
ইমেইল: videostarbanglatv@gmail.com