starbangla.tv l tv channel l News & Program
Welcome
Login / Register

Most Popular Articles


  • ‘টলিউডে রেপ হয় না, যা হয় নারী-পুরুষের সম্মতিতেই ’

    বিনোদন ডেক্স:
    কামালগাজির ফ্ল্যাটের আলসে বিকেল। কিন্তু, মালকিনের কোনও আলিস্যি নেই। কখনও কাস্টিং কা‌উচ নিয়ে অকপট, কখনও বা লবি নিয়ে খোলামেলা। তিনি শ্রীলেখা মিত্র। বিস্ফোরক সাক্ষাত্কারে জানালেন, টলিউডের অন্দরের কথা।
    মীরাক্কেল শেষ। মানে, ব্র্যান্ড শ্রীলেখা আউট অফ ফোকাস। মানবেন?


    শ্রীলেখা: না।
    কেন? এখন আর আপনার হাতে কাজ কোথায়?
    শ্রীলেখা: সামনেই রিমা মুখোপাধ্যায়ের হিন্দি ছবি ‘অর্ধাঙ্গিনী’ রিলিজ করবে। ‘ঘরে বাইরে’র ওপর স্ক্রিপ্ট। সেখানে বিমলার চরিত্র আমার। তার আগে ‘ভাইরাস’ বলে একটা ছবি রিলিজ করবে আগামী ২৪ জুন। পাইপলাইনে ‘অরণ্যদেব’, ‘চেতনা’-র রিলিজও রয়েছে। আর প্রেমেন্দুবিকাশ চাকীর পরিচালনায় জি-বাংলা অরিজিনালস একটা শুরু হচ্ছে। তবে, মাঝে মাঝে আউট অফ ফোকাস থাকা ভাল তো।
    কেন?
    শ্রীলেখা: আমি জীবনে কাজের ক্ষেত্রে হ্যাঁ এর থেকে না বেশি করেছি। আসলে টাকার জায়গাটা ফ্লেকসেবল থাকলে আমি সিলেকটিভ কাজ করি। টাকার টান পড়লে আবার প্রচুর কাজ। তা ছাড়া আমার পিআর একদম ভাল নয়। সকাল থেকে উঠে, কাজ...কাজ...এ সব একদম পারি না।
    কাজ পেতে গেলে পিআর ভাল হতে হয় বলছেন?
    শ্রীলেখা: অবশ্যই। কিন্তু, আমি তো তেলা মাথায় তেল দিতে পারি না। ইন্ডাস্ট্রির অনেকেরই আত্মসম্মান বোধ নেই বা কম। সে কারণেই হয়তো তাদের থেকে আমি কম কাজ পাই। আমার কলিগরাও জানেন, আমি একজন সত্ মানুষ। যেটাতে আমার মন সায় দেয় না, সেটা করব না। আরও একটা উপায় আছে অবশ্য।
    সেটা কী?
    শ্রীলেখা: ইন্ডাস্ট্রির কারও সঙ্গে সম্পর্ক। মানে, একজন হিরো বা ডিরেক্টরের সঙ্গে প্রেম হলে বছরে দু’টো ছবি বাঁধা (মুচকি হাসি)।
    আপনার ক্ষেত্রে সেটা হয়নি বলেই কি বড় পর্দায় শুধুই প্রসেনজিতের বোন হয়ে থাকতে হল?
    শ্রীলেখা: প্রসেনজিতের হিরোইনও তো হয়েছি। ২০০০-এ তো ‘অন্নদাতা’ বিশাল হিট দিয়েছিল।
    তার পর তো আর সে ভাবে...
    শ্রীলেখা: সে সময় প্রসেনজিত্ ওয়ান ম্যান ইন্ডাস্ট্রি। কিছু নায়িকার সঙ্গে ওঁর জুটি জমেছিল। তাঁদের সঙ্গে ওঁর ভাল সম্পর্কও ছিল। কিন্তু, আমার সঙ্গে হয়তো জুটিতে ততটা কমফর্টেবল ছিলেন না (মিনিংফুল হাসি)। পুরোটাই আমার অ্যাজামসান, হতে পারে কোনও এক অজ্ঞাত কারণে হয়তো আমার সঙ্গে উনি আর কাজ করতে চাননি। আমি জানি না, জুটি হলে বোধহয় একটা প্রেম থাকতে হয়, উত্তম সুচিত্রা জুটি...প্রাক্তন...। কিন্তু আমার তো সবাই ‘বাডি’, বন্ধু হয়ে গেল। প্রেমটা আর হল না (প্রাণখোলা হাসি)


    ‘প্রাক্তন’ দেখেছেন?
    শ্রীলেখা: না।
    দেখার প্ল্যান রয়েছে?
    শ্রীলেখা: এখনও তেমন কোনও তাগিদ অনুভব করছি না।
    কেন?
    শ্রীলেখা: ঋতু আমার ছবি দেখেছে? ‘চৌকাঠ’?
    এটা কি গিভ অ্যান্ড টেক পলিসি?
    শ্রীলেখা: সবার বেলায় সেটা হবে, আমার বেলায় কেন নয়? আমিও একটু শিখি। দ্য ওয়েস অফ দ্য ওয়ার্ল্ড...। (হাসতে হাসতে) জোকস আপার্ট। ঋতু আমাকে ‘প্রাক্তন’ দেখার জন্য ফোন করেছিল। নাইস অফ হার। আমার কিন্তু ‘চৌকাঠ’ দেখার জন্য ফোন করা হয়নি। এটা হয়তো আমারই ভুল।
    ‘প্রাক্তন’-এর পরিচালক শিবপ্রসাদই তো নাকি আপনাকে ইন্ডাস্ট্রিতে এনেছেন। তবুও আপনাকে কাজ দেন না। খারাপ লাগে না?
    শ্রীলেখা: দেখুন, আমি কারও কাছে গিয়ে কাজ চাইতে পারব না। আর কেউ কাজ না দিলে, আমি কী করব? ঝগড়া করব? আমি না খুব অলস। ও সব পারি না। তা ছাড়া এত দিন কাজ করে আমি একটা নিজস্ব ব্র্যান্ড তৈরি করেছি। সকলে জানেন আমার পারফরম্যান্স কেমন। তা হলে আর লবি করব কেন?
    শিবপ্রসাদের কোনও ছবিই দেখেননি?
    শ্রীলেখা: তা কেন? ওর ‘ইচ্ছে’ ভাল লেগেছে। বিভিন্ন জায়গায় আমি সে কথা বলেছি। তবে ওর সব ছবি আমার ভাল লাগেনি। আসলে শিবু একটা বড় অংশের বাঙালির ইমোশনটা ক্র্যাক করেছে। সেই অর্থে ও বুদ্ধিমান তো বটেই।
    এখন টলিউডে সেরা পরিচালকদের তালিকায় কাদের রাখবেন?
    শ্রীলেখা: ইন্ডাস্ট্রিতে খুব তাড়াতাড়ি একটা বড় চেঞ্জ আসছে। অনীক দত্ত বা অরিন্দম শীল তো আছেনই। এ ছাড়া সৌকর্য ঘোষালের ‘পেন্ডুলাম’ করেছি আমি। দেখবেন, ও অনেক দূর যাবে। এ ছাড়াও ‘ফড়িং’-এর ইন্দ্রনীল রায়চৌধুরি, ‘বাকিটা ব্যক্তিগত’-র প্রদীপ্ত ভট্টাচার্য— এরা দারুণ কাজ করছে। সবচেয়ে যেটা ভাল, এরা কাজ ছাড়া কিছু বোঝে না। এদের আইডিয়া, ইনোভেশন সবটাই ফ্রেশ।
    আচ্ছা কাস্টিং কাউচের কথা তো খুব শোনা যায়। সত্যিই এমন হয়? আপনার এমন কোনও অভিজ্ঞতা হয়েছিল?
    শ্রীলেখা: আমি যখন কাজ শুরু করেছি তখন কাস্টিং কাউচ অবশ্যই ছিল। তবে, আমি সেটা বুঝিনি। সব জায়গায় বাবা যেত আমার সঙ্গে। একটা ঘটনা শেয়ার করি। নাম বলব না। আমার একটা হিন্দি ছবি করার কথা ছিল। গোবিন্দর তখন খুব রমরমা। আমার হিরো হওয়ার কথা ছিল গোবিন্দরই। প্রথমে তো সেই পরিচালক আমাদের বাড়িতে এলেন। তার পর পিয়ারলেস ইনে স্ক্রিপ্ট শোনাতে ডেকেছিলেন। আমি ভাইয়ের সঙ্গে গেলাম। খেলাম, গল্প করলাম। কিন্তু, স্ক্রিপ্ট আর শোনালেন না। আসলে কেউ একটা স্টেপ নেবেন আর আমি কোনও স্টেপ না নিলে সে তো এগোতে পারবে না। তাই না? সে জন্যই বলব, আমাদের ইন্ডাস্ট্রিতে কোনও রেপ হয় না। কারও ইচ্ছে বা অ্যাম্বিশনটাকে উস্কে দেওয়া হয়। এই সমস্যা সব জায়গায় রয়েছে। না হলে ‘দুপুর ঠাকুরপো’র কোনও অস্তিত্ব থাকত না। শুধু ফিল্মের লোকেদের কেন টার্গেট করা হয় বলুন তো? আমি জাজমেন্টাল হচ্ছি না। শুধু এটা বলছি যে, যে আজকের দিনে ছেলেরা যদি মেয়েদের ইউজ করতে পারে, মেয়েরাও উল্টে ছেলেদের ইউজ করতে পারে। কিন্তু, আমি এটা করতে পারিনি বস! --আনন্দবাজার

    Read more »
  • শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার ফল প্রকাশ ! জেনে নিন রেজান্ট !

    নিজস্ব প্রতিবেদক

    ১৩তম শিক্ষক নিবন্ধনের বাছাই (প্রিলিমিনারি) পরীক্ষার ফল আজ সোমবার প্রকাশ করা হয়েছে। বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষের (এনটিআরসিএ) অধীনে এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

    এনটিআরসিএর সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, এই পরীক্ষায় স্কুল-২ (মাদ্রাসা ও কারিগরি স্তর) পর্যায়ে ১৯ হাজার ২৪৪ জন অংশ নিয়ে উত্তীর্ণ হয়েছেন ৬২০ জন, স্কুল (সাধারণ) পর্যায়ে ৩ লাখ ৬ হাজার ৪৮৪ জন অংশ নিয়ে উত্তীর্ণ হয়েছেন ৯০ হাজার ৯৪৪ এবং কলেজ পর্যায়ে ২ লাখ ২ হাজার ২৯ জন অংশ নিয়ে উত্তীর্ণ হয়েছেন ৫৫ হাজার ৬৯৮ জন।
    অর্থাৎ স্কুল-২ পর্যায়ে পাসের হার ৩ দশমিক ২২ শতাংশ, স্কুল পর্যায়ে ২৯ দশমিক ৬৭ শতাংশ ও কলেজ পর্যায়ে পাসের হার ২৭ দশমিক ৫৭ শতাংশ। সার্বিক পাসের হার ২৭ দশমিক ৯০ শতাংশ।
    উল্লেখ্য, এখন কেন্দ্রীয়ভাবে অনুষ্ঠিত এই নিবন্ধন পরীক্ষার ফলাফলের ওপর ভিত্তি করে বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষক নিয়োগ করা হবে।

    এখানে আপনার রোল নং দিয়ে কিক্ল করে জেনে নিন রেজাল্ট

     

     

    Read more »
  • মেহেরপুর চিতলা ভিত্তি পাট বীজ খামারের অনাবাদি জমিতে পেঁপে চাষে নতুন দিগন্ত

    আল-আমীন,মেহেরপুর
    মেহেরপুর জেলার গাংনী উপজেলাধীন ১৯৫৫সালে ৪০১ একর জমি নিয়ে ভিত্তি পাট বীজ খামারের যাত্রা শুরু হয়। শুরু থেকে ১৩একর জমি রাস্তা দুই পাস সহ অন্যান জায়গায় অনাবাদি হয়ে পড়ে ছিলো প্রায় ৬০ বছর। ২০১৫সালে সেস্টেবর মাসে যোগদান করেন যুগ্ন পরিচালক আবির হোসেন দীঘ, দিনের অলাভজনক খামারটি লাভজনক করণে জন্য নানা মুখী কর্মজগ্য গ্রহন করেন তারি অংশ হিসাবে ৩.৫ একর জমিতে বিভিন্ন জাতের পেঁপে,৭.৫ একরে মেহেরসাগর কলা বাকী জমিতে হলুদ,পেয়ারা ,ও ছড় আলু এই নিয়ে ১৩ একর জমি আবাদ যোগ্য করেন। এই পেঁপে ভিতরে একটি জাতকে নির্বাচন করে ছোট গাছে অনেক বেশী ফলন হবে।সরজমিনে গিয়ে দেখা যায় পতিত জমিতে নতুন একটি জাতের পেঁেপ গাছ উদ্ভাবন করেন গাছটি ২ থেকে আড়াই ফুট উচ্চতা পেঁপে পরিমান প্রায় ২-২.৫০ মন হবে এই জাতটি কে চিতলা পেঁপে-২ নামকরণ করে সারা বাংলাদেশ কৃষকের মধ্যে ছড়িয়ে দিতে চান কৃষিবিদ আবির হোসেন,তিনি আরো জানান এই সাড়ে তিন একর জমিতে প্রথম ঝড়ায়- ১৮হাজার ১৫৫ কেজি পেঁপে হয়।বর্তমান বাজার মুল্য বিক্রয় করে বিএডিসি আয় হয় -১ লক্ষ ৪০ হাজার টাকা।এই ভাবে প্রতি ৩ মাস পর পেঁপে বিক্রয় যোগ্য হবে।মেহেরপুরে সবজি ব্যাবসায়ী কাওছার জানান চিতলা ভিত্তি পাট বীজ খামারের উৎপাদিত পেঁপে মান অত্যান্ত ভালো বর্তমান যুগ্ন পরিচালক মত যোগ্য অফিসার বিএডিসি প্রতিটি খামারে দরকার তাহলে খামার গুলি উন্নয়ত প্রতিষ্ঠানে পরিনত হবে।
    গাংনী উপজেলার বাঁশবাড়িয়া গ্রামের কলা ব্যাবসায়ী কামিরুল ইসলাম জানান,চিতলা পাট বীজ খামারের যে ধরনের কলা চাষ করিয়াছেন বর্তমান যুগ্ন পরিচালক বাংলাদেশ সব খামারের এই ধরনের সবজি আবাদ হওয়া দরকার তাহলে দেশের অনেক উপকার হবে।
    ৮নং ধানখোলা ইউপি সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক জানান, যুগ্নু পরিচালক আবির হোসেন,তার দক্ষ ও মেধা দিয়ে চিতলা পাট বীজ খামারের ব্যাপক উন্নয়ন প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

    Read more »
  • চুয়াডাঙ্গায় কাজী হায়দার স্বর্ণপদক পেলেন কিংবদন্তী ছড়াকার আহাদ আলী মোল্লা


    চুয়াডাঙ্গা থেকে সালেকিন মিয়া সাগর :
    চুয়াডাঙ্গার প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধা কাজী হায়দার স্বর্ণপদক প্রদান করা হয়েছে। প্রথমবারের মতো এ পদক পেয়েছেন চুয়াডাঙ্গার কিংবদন্তী ছড়াকার আহাদ আলী মোল্লা। ছড়া সাহিত্যে অসামান্য অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ আজ আনুষ্ঠানিকভাবে এ পদক তার গলায় পরিয়ে দেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথী জেলা প্রশাসক সায়মা ইউনুস। সাথে ১০ হাজার টাকার নগদ অর্থ পুরস্কার।
    একই সাথে জেলা লেখক সংঘ আহাদ আলী মোল্লাকে ছড়াসম্রাট উপাধিতে ভূষিত করে। দু বছর পর পর শিক্ষা-সংস্কৃতি, শিল্প-সাহিত্য, চিকিৎসা বিজ্ঞান ও সমাজসেবায় বিশেষ অবদানের জন্য জেলার একজন কৃতিসন্তানকে উল্লেখযোগ্য পরিমাণ অর্থ পুরস্কারসহ এ পদক প্রদান করা হবে। যার ব্যয়ভার বহন করবে কাজী হায়দার পরিবার। প্রথমবার এ পদকপ্রাপ্ত আহাদ আলী মোল্লা দৈনিক মাথাভাঙ্গার বার্তা সম্পাদক ও দৈনিক মাথাভাঙ্গার টিপ্পনী কলামের লেখক।
    আজ সকাল ১০টায় চুয়াডাঙ্গা প্রেসক্লাবে কাজী গোলাম মোস্তফা হায়দারের চতুর্থ স্মরণসভা ও পদক প্রদান অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন জেলা লেখক সংঘের সভাপতি হায়দারপতœী ডা. শাহীনূর হায়দার। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক সায়মা ইউনুস। অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচক হিসেবে আলোচনা করেন জেলা পরিষদের প্রশাসক মাহফুজুর রহমান মনজু। বিশেষ আলোচক ছিলেন জীবননগর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান গোলাম মোর্তূজা,বিশিষ্ট সমাজসেবক ও সংঘের উপদেষ্টা কাজী বদরুদ্দোজা, চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজের বাংলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মুন্সি আবু সাইফ , লেখক সংঘের সহসভাপতি ওমর আলী মাস্টার প্রমুখ।
    অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত অতিথী আহাদ আলী মোল্লা জেটিভির এক সাক্ষাত কালে বলেন আজ জেলার বৃহত্তর একটি সাহিত্য সংগঠন থেকে আমি মূল্যায়িত হলাম। এই প্রাপ্তি আমাকে আরও উজ্জীবিত ও প্রাণিত করবে। আমি বৈচিত্রপূর্ণ ও নিরীক্ষাধর্মী ছড়া সৃষ্টির মাধ্যমে ছড়া সাহিত্যকে সমৃদ্ধ করতে চাই। আমার এই স্বীকৃতি একদিন জাতীয় স্বীকৃতিতে সহায়ক হবে এবং কাজী পরিবারকে ধন্যবাদ জানাই।

     

     

     

     

    <iframe width="560" height="315" src="https://www.youtube.com/embed/EUaJeHcOko8" frameborder="0" allowfullscreen></iframe>

    Read more »
  • ইউনেস্কোর জুরি বোর্ডের সভাপতি হলেন সায়মা

    অটিজম বিষয়ক জাতীয় উপদেষ্টা পরিষদের সভাপতি সায়মা ওয়াজেদ হোসেন পুতুল ‘ইউনেসকো-আমির জাবের আল-আহমদ আল-সাবাহ পুরস্কার’ সংক্রান্ত আন্তর্জাতিক জুরিবোর্ডের সভায় সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, উন্নত ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে প্রতিবন্ধী জনগোষ্ঠীর জীবনযাত্রা উন্নয়নে অসামান্য অবদান রাখা ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে স্বীকৃতি দেয়ার জন্য ইউনেসকো আমির জাবের আল-আহমদ আল-সাবাহ পুরস্কারটি প্রবর্তিত হয়। কুয়েতের অর্থ সাহায্যে পরিচালিত এই পুরস্কারের অর্থমূল্য ২০ হাজার মার্কিন ডলার, যা একজন ব্যক্তি এবং একটি প্রতিষ্ঠানকে দেয়া হয়। প্রতিবন্ধীদের নিয়ে কাজ করা আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন ব্যক্তিদের নিয়ে গঠিত আন্তর্জাতিক জুরিবোর্ড এ পুরস্কার প্রাপ্তির জন্য জমা দেয়া শতাধিক আবেদনপত্রের ভেতর থেকে যোগ্যতম প্রার্থীকে খুঁজে বের করার দায়িত্ব পালন করে থাকে। আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন অটিজম বিশেষজ্ঞ সায়মা ওয়াজেদ জুরি হিসেবে দায়িত্ব পালনের জন্য ইউনেস্কোর মহাপরিচালক কর্তৃক মনোনীত হন। জুরিবোর্ডের অন্য চার সদস্যরা হলেন জাতিসংঘ মানবাধিকার কাউন্সিলের স্পেশাল র‌্যাপোর্টিয়ার কাটালিনা দেবানদাস আগুইলার, আন্তর্জাতিক পুরস্কারে ভূষিত লেবাননের সাংবাদিক মে শিডিয়াক, অস্ট্রিয়ার জোহান কেপলার ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক ক্লাউস মিয়েসেনবার্গার এবং প্রতিবন্ধী অধিকার সংক্রান্ত জাতিসংঘ কনভেনশনের সদস্য মার্টিন বাবু মেসিগুয়া। সভার শুরুতে জুরিবোর্ডের সদস্যরা সায়মা ওয়াজেদকে আগামী দুই বছরের জন্য বোর্ডের সভাপতি হিসেবে নির্বাচিত করেন।

    Read more »
RSS